fbpx
logo

ক্লায়েন্টকে এট্রাক্ট করার এফেক্টিভ কভার লেটার টিপস

আপওয়ার্ক অথবা অন্যান্য মার্কেটপ্লেসগুলোতে বিডিং করার সময় আমরা অনেকেই প্রফেশনালি বিড করতে পারি না তখন আমাদের ক্লায়েন্ট এর রেসপন্স পাওয়াটা খুব কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। একটি প্রজেক্ট পাওয়ার জন্য প্রথম যে দরজাটি থাকে সেটি হচ্ছে বিড কভার লেটার। তাই বিট কভার লেটারটি কিভাবে প্রফেশনালি লিখে ক্লায়েন্ট প্রপোজাল হিসেবে সাবমিট করা যায় সেই বিষয়গুলো তুলে ধরার চেষ্টা করব।

নতুন ফ্রীলান্সারদের সাধারণ কিছু ভুলসমূহঃ

 

সাধারণত নতুন ফ্রিল্যান্সাররা একটি কভার লেটার টাইপ করা মানে একটি সিভি টাইপ করা মনে করে কিন্তু আসলে তা মোটেও না। অনেকেই ডিয়ার স্যার, রেস্পেক্টফুল স্যার এবং বিভিন্ন নামে সম্বোধন করে যা আমার মতে একদমই উচিত নয়। অনেকেই জব এর রিকোয়ারমেন্ট বা কভার লেটার না দেখে জব প্রপোজাল সেন্ড করে, যা একজন ক্লায়েন্ট অত্যন্ত অপছন্দ করেন।তাছাড়া অনেকেই কিছু কথা কপি পেস্ট করে একটি বড়োসড়ো কভার লেটার প্রপোজাল হিসেবে সেন্ড করে যা খুবই বড়োসড়ো বোকামি।

 

৩ টি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে কভার লেটার টাইপ করার জন্যঃ

 

মার্কেটপ্লেসগুলোতে বিট করার জন্য একজন ক্লায়েন্ট তার কাজের রিকোয়ারমেন্ট লিখে জব পোস্ট করে, তখন আমরা যারা ফ্রীলেন্সার তারা সবাই ঐ কাজের উপর প্রপোজাল অথবা বিট কভার লেটার পাঠাই। জব পোস্ট হওয়ার সাথে সাথে সেই কাজে বিড করার আগে কিছু জিনিস লক্ষ্য রাখা অত্যন্ত জরুরী। প্রথমত হচ্ছে তার জব পোস্টে কি কি রিকোয়ারমেন্ট দিয়েছে এবং তার ইম্পরট্যান্ট কোন বিষয়টি নিয়ে সে জব টি পোস্ট করেছে তা বুঝতে হবে।

বিড কভার লেটারের টেক্সট বা ওয়ার্ড এর পরিমান খুবই কম এবং সহজভাবে উপস্থাপন করতে হবে যাতে করে আপনার ক্লায়েন্ট আপনার কভার লেটারটি দেখার সাথে সাথে বুঝে ফেলতে পারে যে আপনি কি সার্ভিস দিতে চাইছেন। কভার লেটার এর মধ্যে রিকোয়ারমেন্ট গুলোর ইম্পরট্যান্ট বিষয় গুলো স্বল্পসংখ্যক ওয়ার্ডের মাধ্যমে তুলে ধরুন তাতে করে ক্লায়েন্ট বুঝতে পারবে যে আপনি তার জব রিকোয়ারমেন্ট গুলো ভালো ভাবে পড়েছেন। তাতে করে আপনার প্রতি ক্লায়েন্টের কনফিডেন্ট বেড়ে যাবে।

যদি ক্লায়েন্ট তার জব রিকোয়ারমেন্ট সম্পর্কিত কোন প্রশ্ন করে থাকে তাহলে অবশ্যই সেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে দিবেন আর যদি না করে তাহলে কভার লেটার এর মধ্যে তাকে তার রিকোয়ারমেন্ট গুলো কিছুটা সল্ভ দিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করুন যাতে করে সে আপনার প্রতি আস্থা তৈরি করতে পারে এবং বুঝতে পারে আপনি একজন এক্সপার্ট।

 

কভার লেটার এর একটি উদাহরনঃ

 

একদম শেষে ক্লায়েন্টকে তার প্রজেক্ট এর ব্যাপারে আরও কিছু এফেক্টিভ আলোচনা করতে চান এই ধরনের কথা বলুন । আমি একটি উদাহরন এর মাদ্ধমে বুঝিয়ে দিচ্ছি,

নিচে আমি একটি স্যাম্পল জব ডিটেইলস লিখলাম বোঝানুর জন্যঃ

Sample job title : We need personal booking website for consultancySample

Job Description : We need a booking website for consultancy purpose.We want to take fees in each booking from indivisual client by paypal and we needtotal 5 pages with minimalistic design on wordpress.

এখন আমি চেষ্টা করছি যতটুকু পারা যায় ঠিক ততটুকু কম ওয়ার্ড ব্যাবহার করে সহজভাবে কভার লেটারটি উপস্থাপন করা যায়।

Hi, Greetings!

As a Web developer, I can handle your booking website with customer payment solution in WordPress with minimal design.

If you have no idea how to process with, I can guide you step by step.

Awaiting your kind reply to discuss on this project for making the project successful.

Thanks and regards,

Prince

উদাহরন এর মধ্যে দেখুন প্রথমেই আমি ক্লায়েন্ট যা চেয়েছিল তার সম্পূর্ণ একটি সেন্টেন্সে প্রকাশ করেছি তাতে করে ক্লায়েন্টের মাইন্ডে রিমেম্বার দিবে যে আমি তার কভার লেটারটি পড়েছি এবং কাজটি করতে পারব।

তারপর আমি তাকে আমার সাহায্যের ব্যাপারটা ও বলে দিয়েছি যে আমি তাকে স্টেপ বাই স্টেপ গাইড করব যদি তারে সম্পর্কে ধারণা না থাকে তাতে করে একজন ক্লায়েন্ট যদি কনফিউজড থাকে তাহলে অবশ্যই আপনাকে রিপ্লে দিবে ইন্টারভিউ এর জন্য।

যদি ক্লায়েন্ট কোন কিছু সম্পর্কে স্পেসিফিক্যালি জিজ্ঞাসা করে থাকে তাহলে অবশ্যই তার উত্তর দিয়ে দিবে আর যদি না করে তাহলে তার সাথে ডিসকাস করে প্রজেক্ট  সম্পূর্ণ করার কথা বলতে পারেন

 

আমি মনে করি এভাবে যদি সিম্প্লি আপনি একটি কভার লেটার টাইপ করে প্রপোজাল সেন্ড করেন তাহলে অবশ্যই ৭০% থেকে ৮০% পারসেন্ট ক্লায়েন্ট আপনার কভার লেটার এর বিপরীতে ইন্টার্ভিউ চান্স বেরে যাবে।

No Comments

Post A Comment